চরফ্যাশনে গৃহবধূ নাজমা হত্যার বিচারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

প্রথম পাতা » প্রধান সংবাদ » চরফ্যাশনে গৃহবধূ নাজমা হত্যার বিচারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন
সোমবার, ১২ জুন ২০২৩



ভোলাবাণী ডেক্স।।

ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার বিচ্ছিন্ন ইউনিয়ন ঢালচরের চর নিজাম এলাকায় নাজমা নামের এক গৃহবধূকে যৌতুকের দাবিতে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে স্বামী ও শ^শুর বাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে।

চরফ্যাশনে গৃহবধূ নাজমা হত্যার বিচারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলনএ ঘটনায় নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা করা হলেও একজন ব্যতীতে বাকী আসামীদের এখনো গ্রেপ্তার করা হয়নি। মামলার আসামীরা বাহিরে থেকে মামলা তুলে নিতে বিভিন্ন মাধ্যমে হুমকি দিচ্ছে। এমনকি ঢালচরের ইউপি চেয়াম্যান আব্দুস সালাম হাওলাদার বিষয়টি মিমাংসা করে দেয়ার কথা বলে বিভিন্ন লোকের মাধ্যমে নিহতের পরিবারকে মামলা তুলে নিতে প্রস্তাব দিচ্ছেন বলে অভিযোগ করেন, নিহতের ভাই আবুল হাসেম। এ অবস্থায় ওই গৃহবধূর পরিবার বিষয়টি নিয়ে শঙ্কায় রয়েছেন।

সোমবার (১২ জুন) দুপুরে ভোলা শহরের একটি পত্রিকা অফিসে সংবাদ সম্মেলন করে এসব অভিযোগ করেন, নিহতের ভাই মো. আবুল হাসেম।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত অভিযোগে নিহতের ভাই আরো জানান, গত ছয় বছর আগে তাঁর ছোট বোন নাজমাকে (২৩) চরফ্যাশন উপজেলার দক্ষিণ আইচা থানার ঢালচর ইউনিয়নের চরনিজাম এলাকার বাসিন্দা মো. আলম বেপারীর ছেলে মো. সবুজ বেপারীর (৩০) কাছে ইসলামী শরিয়ত মোতাবেক বিবাহ দেওয়া হয়। বিয়ে দেওয়ার সময় তার বোন নাজমার শ্বশুর-শ্বাশুড়ির চাহিদা অনুযায়ী স্বামী মো. সবুজকে ব্যবসা করার জন্য নগদ এক লাখ টাকা ও স্বর্ণালংকার এবং আসবাবপত্র বাবদ দুই লাখ বিশ হাজার টাকা দেওয়া হয়।

বিবাহের পর তাদের সংসার ভালোভাবেই চলে আসছে। বিবাহের দেড় বছর পরে তাদের সংসারে মেয়ে সন্তান মোসা. সুমাইয়া নামের এক জন কন্যা সন্তান জন্ম গ্রহণ করেন। সুমাইয়ার জন্মের পর স্বামী সবুজ নাজমার কাছে আবারও তিন লাখ টাকা যৌতুক দাবী করে। কিন্তু গৃহবধূ নাজমা পরিবারের অস্বচ্ছলতার কথা চিন্তা করে তাদের দাবীকৃত যৌতুক এনে দিতে অপারগতা প্রকাশ করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে নাজমার স্বামী সবুজ, শ্বাশুড়ী নুরজাহান বেগম, ভাসুর মো. সোহেল ও শ্বশুর আলম বেপারী নাজমার ওপর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন শুরু করে।
নিহতের ভাই আবুল হাসেম আরো জানান, নির্যাতনের অংশ হিসেবে গত ০৫ জুন দিবাগত রাতে তার বোন নাজমাকে স্বামী মো. সবুজ, শ্বাশুড়ী নুরজাহান বেগম, ভাসুর মো. সোহেল ও শ্বশুর আলম বেপারীসহ অজ্ঞাতনামা আরো ০৫-০৬ জনের সহায়তায় মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন ও ধারালো দা কুপিয়ে হত্যা করে লাশ আম গাছের সাথে ঝুলিয়ে রাখে। গত মে মাসেও তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে মারধর করা হয়েছে। কিন্তু স্থানীয় লোকজন বিষয়টি টের পাওয়া সেটি করতে পারেনি।
বোনের মৃত্যুর খবর পেয়ে তারা লোকজনসহ বিচ্ছিন্ন চর নিজামে গিয়ে বোনকে আমগাছের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পান। পরবর্তীতে থানা পুলিশের সহায়তায় লাশ মাটিতে নামানোর পর তার বোনের মাথার বাম পাশে কানের ওপরের অংশে একটি ও মাথার পিছনে একটি সর্বমোট দুইটি ধারালো দায়ের কোপে গুরুতর কাটা জখম দেখতে পান। এর থেকে ধারণা করছেন, তার বোনকে মধ্যযুগীয় কায়দা নির্যাতন, মারধর ও কুপিয়ে রক্তাক্ত করে মারা হয়েছে। এ ঘটনাকে আড়াল করার উদ্দেশ্যে গলায় রশি দিয়ে আমগাছের ঝুলিয়ে রেখেছে স্বামী ও শ^শুর বাড়ির লোকজন। এঘটনায় নাজমার স্বামী সবুজসহ অন্য আসামীরা পালিয়ে যায়। পরে পুলিশ শ্বাশুড়ী নুরজাহান বেগমকে আটক করে। কিন্তু বাকী আসামীরা এখনো পলাতক রয়েছে। পলাতক আসামীরা বিভিন্নভাবে তাদেরকে মামলা তুলে নেওয়ার জন্য ভয়ভীতি ও হুমকি দিয়ে আসছে। এমনকি

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম হাওলাদারও বিভিন্ন লোক পাঠিয়ে মিমাংসার প্রস্তাব নিয়ে মামলা তুলে নিতে তাদের কাছে লোক পাঠিয়েছেন। তারা প্রশাসনের কাছে পলাতক আসামীদেরকে দ্রুত গ্রেফতার এবং বিচারের মাধ্যমে নাজমা হত্যার আসামীদের ফাঁসি দাবী করেন।
এ বিষয়ে ঢালচর ইউনিয়ন পরিষরেদ চেয়ারম্যান মো. আব্দুস সালাম হাওলাদার জানান, নিহতের পরিবারের কাউকে তিনি চিনেন না। তিনি কখনো তাদের কাউকে দেখননি ও ফোনেও কথা হয়নি কারো সাথে। আর এটি একটি মার্ডার মামলা এটি উচ্চ আদালতের বিষয়। এখানে ইউপি চেয়ারম্যানের মিমাংসা তো দূরের কথা, কথা বলারও কোনো এখতিয়ার নেই।
চরফ্যাশনের দক্ষিণ আইচা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শাখাওয়াত হোসেন জানান, এ ঘটনায় নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে একটি মামলা করা হয়েছে। ওই মামলায় গৃহবধূ নাজমার শ^াশুরীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকী আসামীদেরও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলে জানান তিনি।

বাংলাদেশ সময়: ২২:৪৯:৪৯   ১৩০ বার পঠিত  |




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

প্রধান সংবাদ’র আরও খবর


মেসির সঙ্গে খেলতে চান নেইমার
পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ
আনারস ও মোটর সাইকেল প্রতিক নিয়ে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ভোট প্রার্থীরামনপুরায় ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে লোকমান হোসেন হাং ও আমানতউল্যাহ আলমগীর মধ্যে লড়াই হবে হাড্ডা হাড্ডি ॥
এতিম খানায় ও সাধারন মানুষের মাঝে বিনা মূল্যে বিতরন মনপুরায় অভিযান চালিয়ে মৎস্য আড়ৎ থেকে ২২০ কেজি অবৈধ মাছ জব্দ ॥
ভোলায় বাংলাদেশ ইতিহাস সম্মিলনী বরিশাল বিভাগীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত
মনপুরায় জাতীয় ভোটার দিবস পালিত
বোরহানউদ্দিনে ডায়াগনস্টিক সেন্টারে অভিযান ১০ হাজার টাকা জরিমানা
১৯০ কিলোমিটার এলাকায়মেঘনা তেতুলিয়ায় মাছ ধরার উপর নিষেধাজ্ঞা
দুঃসময়ে পাকিস্তানের পাশে দাঁড়িয়েছে চীন
দেশবাসীকে আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীনিত্যপণ্যের দাম নিয়ে গুজবে কান দেবেন না

আর্কাইভ