প্রতিটি উপজেলায় মসজিদ নির্মাণ করে ইসলাম ধর্ম প্রচারে সুযোগ করে দেব-প্রধানমন্ত্রী

প্রথম পাতা » ইসলাম ও ধর্ম » প্রতিটি উপজেলায় মসজিদ নির্মাণ করে ইসলাম ধর্ম প্রচারে সুযোগ করে দেব-প্রধানমন্ত্রী
সোমবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৩



ভোলাবাণী ডেক্স।।  বিদ্যুতে দীর্ঘদিন ভর্তুকি দেওয়া সম্ভব নয়। তাই বিদ্যুৎ ব্যবহারে সবাইকে সাশ্রয়ী হতে হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ সোমবার সকালে গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি সংযুক্ত হয়ে ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র ও মডেল মসজিদ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রতিটি উপজেলায় মসজিদ নির্মাণ করে ইসলাম ধর্ম প্রচারে সুযোগ করে দেব-প্রধানমন্ত্রী

শেখ হাসিনা বলেন, আমরা যে দামে বিদ্যুৎ উৎপাদন করি, তার অর্ধেক দামে বিদ্যুৎ আমরা দিচ্ছি। বিরাট অঙ্কের ভর্তুকি দিতে হচ্ছে। সেই ভর্তুকি দীর্ঘদিন দেওয়া সম্ভব নয়। সেই কথাগুলো সবার মাথায় রাখতে হবে। কোনোভাবে বিদ্যুৎ, পানি, গ্যাস অপচয় না ঘটে। ইসলাম ধর্মে অপচয়ের ব্যাপারে না রয়েছে।আলেমদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আপনারা মসজিদে নামাজ পড়বেন, তখন বিদ্যুৎ ব্যবহার করবেন। মসজিদ থেকে বের হওয়ার সময় বিদ্যুতের সুইচগুলো বন্ধ করে রাখবেন। ওটা শুধু মসজিদের ক্ষেত্রে না, আপনাদের বাড়িতেও বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হবেন। এতে আপনাদের বিলও কম হবে, বিদ্যুতের সাশ্রয় হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, মাঝেমধ্যে আমাদের কোমলমতি ছেলেদের বিভ্রান্তি পথে নিয়ে যাওয়া হয়। তারা যেন জঙ্গিবাদের সঙ্গে সম্পৃক্ত না হয়। সে জন্য তাদের বোঝাতে হবে যে ইসলাম ধর্ম শান্তির ধর্ম। মানুষ খুন করলে কখনো বেহেশতে যাওয়া যায় না। খুন করলে দোজখেই যেতে হয়। এ বিষয়টা মানুষকে সচেতন করতে হবে।
তিনি বলেন, মাদক, নারীর প্রতি সহিংসতা, জঙ্গিবাদ, অহেতুক মিথ্যা কথা বলে গুজব ছড়ানো, গৃহকর্মীদের প্রতি অমানবিক আচরণ, দুর্নীতি ইত্যাদির বিষয়ে মসজিদের খুতবা দেওয়ার সময় যদি আপনারা বেশি করে বোঝান, তাহলে কিন্তু মানুষ সেটা গ্রহণ করে। বিশেষ করে জুমার দিন যে খুতবা দেওয়া হয়, তখন ভালোভাবে তুলে ধরা দরকার।

শেখ হাসিনা বলেন, প্রতিটি উপজেলায় মসজিদ নির্মাণ করে ইসলাম ধর্ম প্রচারে সুযোগ করে দেব। আজকে আমরা ৫০টি মসজিদ উদ্বোধনের জন্য সমবেত হয়েছি। রমজান মাসে উদ্বোধন করতে পেরেছি। এ জন্য সকলকে আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের কাছে কিছু দোয়া করতে বলব, আমরা যেন আমাদের লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারি।

সরকারপ্রধান বলেন, শেখ মুজিবুর রহমান ২৬ মার্চ স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছিলেন। সে ঘোষণাকে অনুমোদন দিয়েই ১৭ এপ্রিল স্বাধীনতার ঘোষণাপত্র গ্রহণ করা হয়। আজকে দিনে প্রথম সরকার গঠন করা হয়েছিল। যেহেতু বঙ্গবন্ধু পাকিস্তানিদের হাতে কারাগারে বন্দি ছিলেন, তাই উপ-রাষ্ট্রপতি সৈয়দ নজরুল ইসলাম অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এই সরকারই মহান মুক্তিযুদ্ধ পরিচালনা করেন। সকলের সহায়তায় ১৬ ডিসেম্বর আমরা বিজয় অর্জন করি।

বাংলাদেশ সময়: ১৭:২৫:৫২   ৮৬ বার পঠিত  |




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

ইসলাম ও ধর্ম’র আরও খবর


নারীরা যেভাবে ইতেকাফ করবেন
পবিত্র মাহে রমজানের ৮ সুন্নত
আল্লাহর যেসব হক আদায় করা মুমিনের কর্তব্য
তুরাগতীরে দেশের বৃহত্তম জুমার জামাত অনুষ্ঠিত
আতিথেয়তায় আল্লাহর অনুগ্রহ মিলে যেভাবে
লিবিয়ায় মুসলিম বিজয়ের ইতিহাস
আজ ইসলামী চিন্তাবিদ মাওলানা মোঃ হাবিবউল্লাহ’র ৩য় মৃত্যুবার্ষিকী
কাদের জন্য ওমরাহ , এর ফজিলত ও কবুল হওয়ার শর্ত
ধর্মীয় সম্প্রীতির নতুন ভুবন: আমিরাতে একই কমপ্লেক্সে মসজিদ-গির্জা-সিনাগগ
পবিত্র হজ আজ লাব্বাইক ধ্বনিতে মুখর হবে আরাফাতের ময়দান

আর্কাইভ