শিরোনাম:
ভোলা, বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ১৬ আষাঢ় ১৪২৯

Bholabani
বুধবার ● ১৫ জুন ২০২২
প্রথম পাতা » প্রধান সংবাদ » পূর্ণিমার প্রভাবে ভোলার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত
প্রথম পাতা » প্রধান সংবাদ » পূর্ণিমার প্রভাবে ভোলার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত
৩১ বার পঠিত
বুধবার ● ১৫ জুন ২০২২
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

পূর্ণিমার প্রভাবে ভোলার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত

স্টাফ রিপোর্টার ॥
পূর্ণিমার প্রভাবে সৃষ্ট অস্বাভাবিক জোয়ারে দ্বীপ জেলা ভোলার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। এতে তলিয়ে গেছে রাস্তাঘাট, ফসলি জমিসহ বিস্তীর্ণ এলাকা। মঙ্গলবার (১৪ জুন) দুপুর থেকে মেঘনার পানি বিপৎসীসার ৩ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে। এতে তলিয়ে গেছে বাঁধের বাইরের নিচু এলাকা। পানিবন্দি হয়ে পড়েছে কমপক্ষে ৩০ হাজার মানুষ। তবে এ পর্যন্ত কোথাও কোনো ক্ষয়-ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি। উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢল, পূর্ণিমার প্রভাব ফলে পানি বৃদ্ধি পেয়েছে জানিয়েছে পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো)।

পাউবো সূত্রে জানা যায়, পূর্ণিমার প্রভাবে সৃষ্ট অস্বাভাবিক জোয়ারে মেঘনার পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এতে তলিয়ে গেছে উপকূলের বিস্তীর্ণ নিচু এলাকা। জোয়ারের পানিতে বাঁধের বাইরের অন্তত ২০টি নিচু এলাকা ডুবে গেছে। পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন কমপক্ষে ৩০ হাজার মানুষ। রাস্তাঘাট ও ঘরবাড়ি তলিয়ে যাওয়ায় দুর্ভোগে পড়েছে এই এলাকায় বসবাসরত মানুষ।

পূর্ণিমার প্রভাবে সৃষ্ট অস্বাভাবিক জোয়ারে দ্বীপ জেলা ভোলার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে।

জেলার মেঘনার উপকূলবর্তী সদরের নাছির মাঝি, রাজাপুর, মনপুরার চরনিজাম, কলাতলীর চর, চরযতিন, চরজ্ঞান, চরফ্যাশনের কুকরিমুকরি, ঢালচর, চরপাতিলা, মাঝেরচর, চরশাহজালাল, কচুয়াখালীর চরসহ ২০ চর প্লাবিত হয়েছে।
ভোলার রাজাপুর ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের সফিজল মাঝি, ও নাছির মাঝি এলাকার বাসিন্দা হারেছ মিয়া বলেন, বর্ষায় এলেই আমাদের দুর্ভোগের শেষ থাকে না। বর্ষায় জোয়ারের পানি বৃদ্ধির ফলে কাঁচা রাস্তাঘাট ডুবে যায়। বর্ষায় পানির কারণে আমরা ঘর থেকে বের হতে পারি না। বর্ষায় আমাদের গ্রামে কেউ অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে হাসপাতালে নেওয়ার অবস্থাও থাকে না। ঘরের চুলা পর্যন্ত ডুবে যায়। রান্না, খাওয়া সব বন্ধ হয়ে যায়। সরকার একটা রিংবেড়ি দিলে আমাদের এই দুর্ভোগ থেকে রক্ষা পাওয়া যেত। এছাড়াও কুকরিমুকরি ও ঢালচরের বাসিন্দারাও পূর্ণিমার প্রভাবে সৃষ্ট অস্বাভাবিক জোয়ারে পানিবন্ধি রয়েছেন।
ভোলা পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) ডিভিশন-২ এর প্রকৌশলী হাসান মাহমুদ জানান, উজানের পানির চাপে ও মেঘনার পানি বিপৎসীমায় প্রবাহিত হওয়ায় নিচু এলাকা প্লাবিত হয়েছে। তবে এতে তেমন কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি। আরও কিছুদিন এ অবস্থা বিরাজ করতে পারে।





আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)
আবার এসেছে আষাঢ়
লালমোহনে বিদ্যালয়ের অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে প্রধান শিক্ষককে অব্যহতি
ভোলায় চাঞ্চল্যকর পর্নোগ্রাফি মামলার আসামি ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে গ্রেফতার
মনপুরায় বিআইডব্লিটিসি ও বিআইডব্লিটিএর কর্মকর্তাদের ফেরিঘাট পরিদর্শন ও সুধি সমাবেশ
কুকরী-মুকরী জেলের জালে ধরা পড়ল বিরল প্রজাতির কচ্ছপ-ডলফিন
ভোলায় একজন বাকপ্রতিবন্ধী ঠিকানাহীন মেয়ে খুঁজে পেলো স্থায়ী নিরাপদ আশ্রয়স্থল।
দেশব্যাপী ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রম শুরু
এনজিওতে চাকরির সুযোগ
বাংলাদেশের উপকূলেই আসবে অশনি!
লালমোহনে জেলেদের জালে ধরা পড়লো রাজা ইলিশ