শিরোনাম:
ভোলা, মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর ২০২২, ২১ অগ্রহায়ন ১৪২৯

Bholabani
বুধবার ● ২ নভেম্বর ২০২২
প্রথম পাতা » জাতীয় » জানুয়ারির ১ তারিখে সব শিক্ষার্থীর হাতে পাঠ্যবই তুলে দিতে চায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়
প্রথম পাতা » জাতীয় » জানুয়ারির ১ তারিখে সব শিক্ষার্থীর হাতে পাঠ্যবই তুলে দিতে চায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়
৩৭ বার পঠিত
বুধবার ● ২ নভেম্বর ২০২২
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

জানুয়ারির ১ তারিখে সব শিক্ষার্থীর হাতে পাঠ্যবই তুলে দিতে চায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়

ভোলাবাণী ডেক্সঃ জানুয়ারির ১ তারিখে সব শিক্ষার্থীর হাতে পাঠ্যবই তুলে দিতে চায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়। চুক্তিভুক্ত প্রেস নির্ধারিত সময়ে বই দিতে ব্যর্থ হলে তাদের কালো তালিকা করাসহ প্রতিষ্ঠানের মালিকদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

২০২৩ সালে বই বিতরণ সংক্রান্ত জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের (এনসিটিবি) জরুরি এক সভায় এসব সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সভায় শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনির সভাপতিত্বে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব আবু বকর ছিদ্দিক, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক নেহাল আহমেদ এবং প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক শাহ রেজওয়ান হায়াত উপস্থিত ছিলেন।

জানুয়ারির ১ তারিখে সব শিক্ষার্থীর হাতে পাঠ্যবই তুলে দিতে চায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়

সভা সূত্রে জানা গেছে, শিক্ষামন্ত্রী জানিয়েছেন, ২০২৩ সালের পাঠ্যপুস্তক তৈরিতে কাগজ মিল মালিকদের সঙ্গে দর সংক্রান্ত যে চুক্তি হয়েছে সেটিই বহাল থাকবে। সেখানে নতুনভাবে আর দর বৃদ্ধি করা হবে না। এ বিষয়ে মিল মালিকদের সঙ্গে শিক্ষামন্ত্রী বৈঠক করেছেন। তারা যেন নির্ধারিত কাগজ সরবরাহ করেন সে অনুরোধ জানিয়েছেন বলে সভায় শিক্ষামন্ত্রী উল্লেখ করেন।অন্যান্য সিদ্ধান্তগুলোর মধ্যে রয়েছে, যেভাবেই হোক আগের মতো বছরের প্রথম দিনই সব শিক্ষার্থীর হাতে বই পৌঁছাতে হবে। এক্ষেত্রে মিল মালিকদের কাগজের কৃত্রিম সংকট অথবা ছাপাখানা মালিকদের অপারগতা মেনে নেওয়া হবে না।

যেসব ছাপাখানা নানা অজুহাত দেখিয়ে নির্ধারিত সময়ে পাঠ্যবই সরবরাহ করতে পারবেন না সেসব ছাপাখানাকে কালো তালিকাভুক্ত করা হবে। একইসঙ্গে এসব প্রতিষ্ঠানের মালিকরা আগামীতে ছাপাখানার ভিন্ন নাম ব্যবহার করে যেন কাজ না পায়; সেজন্য প্রতিষ্ঠানের মালিকদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

যেসব ছাপাখানা মালিকরা নির্ধারিত সময়ে বিল না পাওয়ায় বই ছাপাতে অপারগতা জানিয়েছে তাদের বিল দ্রুত সময়ে পরিশোধ করতে হবে। একইসঙ্গে আগামীতে যেন এমন সংকট না হয় সেজন্য শতভাগ বই সরবরাহের পর প্রেস মালিকদের পাওনার ৮০ শতাংশ পরিশোধ করা হবে। বাকি ২০ শতাংশ বিল ওয়ারেন্টি পিরিয়ডের মধ্যে পরিশোধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

জানতে চাইলে এনসিটিবির চেয়ারম্যান অধ্যাপক ফরহাদুল ইসলাম  বলেন, বিশ্ববাজারে কাগজের দাম বেড়ে যাওয়ায় পাঠ্যবই তৈরিতে কাগজ সংকট দেখা দিয়েছে। দেশের মিল মালিকরাও এক ধরনের কৃত্রিম সংকট তৈরির অপচেষ্টা চালাচ্ছে। তবে নির্ধারিত সময়ে শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দেওয়ার বিষয়ে কোনো আপস করা হবে না। সে যেই হোক তার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী।

তড়িঘড়ি করে বই দেওয়ার নামে প্রেস মালিকরা যাতে নিম্নমানের বই সরবরাহ করতে না পারে সে কারণে শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের আলাদা আলাদা কমিটির সঙ্গে মাঠ পর্যায়ে নিয়মিত মনিটরিং কাজ পরিচালনা করবে।

তিনি বলেন, আগামী বছর ৩৫ কোটি পাঠ্যপুস্তক ছাপানো হবে। তার মধ্যে মাধ্যমিকের ২৩ কোটি বইয়ের মধ্যে এখন পর্যন্ত মাত্র পাঁচ কোটি বই ছাপানো হয়েছে। আগামী ৩ নভেম্বর থেকে প্রাথমিকের বই ছাপানোর কাজ শুরু করা হবে বলে জানান তিনি।

তিনি আরও বলেন, বিনামূল্যের বই তৈরিতে প্রতি বছরের শেষের দিকে নানা ধরনের জটিলতা তৈরি হয়ে থাকে। মিল মালিক ও প্রেস মালিকদের কাছে এনসিটিবি এক ধরনের জিম্মি দশা পরিস্থিতি তৈরি হয়। সে কারণে প্রতিবছরের শুরুতে শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় যৌথভাবে বসে নতুন রূপরেখা তৈরি করবে। নির্ধারিত সময়ে শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দিতে বিদেশ থেকে কাগজ আমদানি ও আন্তর্জাতিক দরপত্র আহ্বান করা হতে পারে বলেও জানান তিনি।

সভায় প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়, শিক্ষা মন্ত্রণালয়, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা অধিদপ্তরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।





জাতীয় এর আরও খবর

<small>দেশের অর্থনীতি এখনো স্থিতিশীল আছে </small>রিজার্ভ নিয়ে গুজবে কান দেবেন না : প্রধানমন্ত্রী দেশের অর্থনীতি এখনো স্থিতিশীল আছে রিজার্ভ নিয়ে গুজবে কান দেবেন না : প্রধানমন্ত্রী
বাংলাদেশের নারীরা শান্তি মিশনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে - প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের নারীরা শান্তি মিশনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে - প্রধানমন্ত্রী
এসএসসিতে পাশের হার ৯৩.৫৮ শতাংশ এসএসসিতে পাশের হার ৯৩.৫৮ শতাংশ
<small>সশস্ত্র বাহিনী দিবস-২০২২ </small>সবার সহযোগিতায় বৈশ্বিক সংকট মোকাবিলা করে এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ-প্রধানমন্ত্রী সশস্ত্র বাহিনী দিবস-২০২২ সবার সহযোগিতায় বৈশ্বিক সংকট মোকাবিলা করে এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ-প্রধানমন্ত্রী
<small>দেশের অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি নিশ্চিত করতে</small> আবাদি জমি রক্ষায় পরিকল্পিত শিল্পায়নের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর দেশের অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি নিশ্চিত করতে আবাদি জমি রক্ষায় পরিকল্পিত শিল্পায়নের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর
টাকা নিয়ে বসে থাকলে হবে না, দেশের মানুষের কল্যাণে খরচ করতে হবে- প্রধানমন্ত্রী টাকা নিয়ে বসে থাকলে হবে না, দেশের মানুষের কল্যাণে খরচ করতে হবে- প্রধানমন্ত্রী
দেশ গড়ার কাজে যুবলীগের মনোযোগী হতে হবে- যুব সমাবেশে প্রধানমন্ত্রী দেশ গড়ার কাজে যুবলীগের মনোযোগী হতে হবে- যুব সমাবেশে প্রধানমন্ত্রী
<small>বড় প্রকল্প গ্রহণে ফিজিবিলিটি স্টাডি গভীরভাবে দেখতে হবে</small>আয়েশি-বিলাসী প্রকল্প নেওয়া যাবে না-একনেকে শেখ হাসিনা। বড় প্রকল্প গ্রহণে ফিজিবিলিটি স্টাডি গভীরভাবে দেখতে হবেআয়েশি-বিলাসী প্রকল্প নেওয়া যাবে না-একনেকে শেখ হাসিনা।
<small>৮৭৯ কোটি ৬২ লাখ টাকা ব্যয়ে</small>১০০ সেতুর উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী ৮৭৯ কোটি ৬২ লাখ টাকা ব্যয়ে১০০ সেতুর উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী
রেমিট্যান্সের বিপরীতে চার্জ কাটবে না ব্যাংকগুলো রেমিট্যান্সের বিপরীতে চার্জ কাটবে না ব্যাংকগুলো

আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)
ডিসেম্বরের মাঝামাঝিতে জেঁকে বসবে শীত
মুজিব কোর্টের ইতিকথা
ভোলায় নতুন গ্যাসক্ষেত্রের সন্ধান পেয়েছে বাপেক্স
লালমোহনে স্লো রেস মোটরসাইকেল প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত
বিয়ের পরে ওজন বাড়ে,জেনে নিন এর কারণ
ভোলায় হারিয়ে যাওয়া ১০টি ফোন উদ্ধার করলো সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন
চরফ্যাশনে দেশী হাঁসের কালো ডিম নিয়ে এলাকায় চাঞ্চল্যে
যে কোন সংকটে মানবসেবায় ঝাঁপিয়ে পড়েন শাহপরান জয়
যৌনতায় সুখ পেলই বিয়ে হয় যেখানে
তজুমদ্দিনে টেকশই বেড়িবাঁধ নির্মাণ,অপরূপ সৌন্দর্যের হাতছানি।