শিরোনাম:
ভোলা, বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ১৬ আষাঢ় ১৪২৯

Bholabani
বুধবার ● ১৮ মে ২০২২
প্রথম পাতা » এক্সক্লুসিভ » ভোলায় একজন বাকপ্রতিবন্ধী ঠিকানাহীন মেয়ে খুঁজে পেলো স্থায়ী নিরাপদ আশ্রয়স্থল।
প্রথম পাতা » এক্সক্লুসিভ » ভোলায় একজন বাকপ্রতিবন্ধী ঠিকানাহীন মেয়ে খুঁজে পেলো স্থায়ী নিরাপদ আশ্রয়স্থল।
৯৪ বার পঠিত
বুধবার ● ১৮ মে ২০২২
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

ভোলায় একজন বাকপ্রতিবন্ধী ঠিকানাহীন মেয়ে খুঁজে পেলো স্থায়ী নিরাপদ আশ্রয়স্থল।


এম এইচ ফাহাদ-ভোলাঃ

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেল ভোলা এর মহানুভবতায় একজন বাকপ্রতিবন্ধী ঠিকানাহীন মেয়ে খুঁজে পেলো স্থায়ী নিরাপদ আশ্রয়স্থল।গত ১৬ মে ২০২২ তারিখ  রাত অনুমান ৮.৩০ মিঃ ভেদুরিয়া লঞ্চঘাটে বরিশাল হতে ভোলাগামী লঞ্চের যাএীরা যখন লঞ্চ থেকে নামছিল ঠিক ওই সময়ে একজন অভিভাবকহীন বাকপ্রতিবন্ধী যাএীকে দেখা যায় যার বয়স অনুমান ১৮ বছর।


লঞ্চের যাএীরা তার ঠিকানা জিজ্ঞাসা করলে মেয়েটি কোনো  উত্তর দিতে পারেনি।অসহায় মেয়েটি অনেক কান্নাকাটি করতে থাকে।ঠিক তখন মোঃ ফরহাদ সরদার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেল উক্ত ঘাটে নিরাপত্তা ডিউটি তদারকি করতে গেলে বিষয়টি তার দৃষ্টিগোচর হয়।


অভিভাবকহীন, বাকপ্রতিবন্ধী,অসহায় মেয়েটির নিরাপত্তার স্বার্থে তিনি মেয়েটিকে পুলিশি হেফাজতে নিয়ে আসেন এবং তাকে ভোলা সদর মডেল থানার নারী,শিশু ও প্রতিবন্ধী ডেস্কে  একজন নারী কনস্টেবলের সহায়তায় তাকে নিরাপদ স্থানে সুরক্ষিত রাখার ব্যবস্থা করেন।


পরবর্তীতে রাত অনুমান ১২ টার দিকে সে শারিরীকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়লে  অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেল  তার সুচিকিৎসা নিশ্চিত করতে নিজেই সাথে করে মেয়েটিকে ভোলা সদর হাসপাতালে নিয়ে যান এবং তার চিকিৎসা করান।


হাসপাতাল থেকে ফেরত আনার পর বাকপ্রতিবন্ধী মেয়েটির সাথে থাকা ব্যাগের ভিতর থেকে অনেক খোঁজাখুজির মাধ্যমে একটি মোবাইল নাম্বারের সূএ ধরে জানতে পারেন যে মেয়েটি পিতৃমাতৃহীন একজন সন্তান এবং অজ্ঞাতনামা হিসেবে সে কাশিমপুর  সরকারি আশ্রয় কেন্দ্র,গাজীপুরে প্রায় দীর্ঘ ১২ বছর যাবৎ  অবস্থান করে।সেখানকার একজন দায়িত্বশীল কর্মকর্তার সাথে কথা বলে জানা যায় মেয়েটির বয়স ১৮ বছর হওয়ায় তারা মেয়েটিকে একটি গার্মেন্টেসে চাকুরী দেয়।কিন্তু মেয়েটি সেখান থেকে পালিয়ে প্রথমে ঢাকা থেকে বরিশাল এবং পরবর্তীতে বরিশাল থেকে ভোলায় চলে আসে।


এমন ঘটনার প্রেক্ষাপটে মোঃ ফরহাদ সরদার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেল ভোলা  এর সার্বিক  সহযোগিতায় তাকে গাজীপুরের পুবাইল সরকারী আশ্রয়কেন্দ্রের দায়িত্বরত কর্মকর্তার সহিত আলোচনা সাপেক্ষে ভোলা জেলার প্রথম শ্রেনীর ম্যাজিষ্ট্রেটের সহযোগীতায় এবং আদেশক্রমে তাকে পুলিশের সহায়তায় নারী পুলিশ সহ স্কট করে গাজীপুরের পুবাইল সরকারী আশ্রয়কেন্দ্রে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে।এবং সে একটি নিরাপদ ও স্থায়ী আশ্রয়স্থান পেয়েছে।


ভোলার মানবিক মোঃ ফরহাদ সরদার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেল  মেয়েটিকে একটি নিরাপদ ও স্থায়ী আশ্রয়স্থান দিতে পেরে অত্যন্ত সন্তোষপ্রকাশ করেছেন। তিনি সকলকে মানবিক কাজ করার জন্য উদত্ত আহবান জানান।


উল্লেখ্য মোঃ সাইফুল ইসলাম বিপিএম,পিপিএম পুলিশ সুপার,ভোলা এর দিক-নির্দেশনা মোতাবেক জেলা পুলিশের প্রতিটি সদস্যই মানবিক  কার্যক্রমের ক্ষেত্রে সদা তৎপর রয়েছে।





আর্কাইভ

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)
আবার এসেছে আষাঢ়
লালমোহনে বিদ্যালয়ের অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে প্রধান শিক্ষককে অব্যহতি
ভোলায় চাঞ্চল্যকর পর্নোগ্রাফি মামলার আসামি ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে গ্রেফতার
মনপুরায় বিআইডব্লিটিসি ও বিআইডব্লিটিএর কর্মকর্তাদের ফেরিঘাট পরিদর্শন ও সুধি সমাবেশ
কুকরী-মুকরী জেলের জালে ধরা পড়ল বিরল প্রজাতির কচ্ছপ-ডলফিন
ভোলায় একজন বাকপ্রতিবন্ধী ঠিকানাহীন মেয়ে খুঁজে পেলো স্থায়ী নিরাপদ আশ্রয়স্থল।
দেশব্যাপী ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রম শুরু
এনজিওতে চাকরির সুযোগ
বাংলাদেশের উপকূলেই আসবে অশনি!
লালমোহনে জেলেদের জালে ধরা পড়লো রাজা ইলিশ